You are currently viewing Doctor’s Website Bangladesh: ডাক্তারদের জন্য ওয়েবসাইট কেন প্রয়োজন?

Doctor’s Website Bangladesh: ডাক্তারদের জন্য ওয়েবসাইট কেন প্রয়োজন?

দিন দিন মানুষ প্রযুক্তি নির্ভর হয়ে যাচ্ছে। এখন অনলাইনে বিদ্যুৎ বিল, গ্যাস বিল, পানির বিল সব কিছুই দেওয়া যায়। যা ১০ বছর আগে কেউ কল্পনাও করেনি। এখন খুব কম সংখ্যক মানুষ দেখতে পাওয়া যায় যারা তাদের বিলগুলো পায়ে হেটে অফিসে দিতে যান। হয়তো এমন একটা সময় আসবে যখন আর কেউ বিল দেওয়ার জন্য অফিসে যাবে না।

সব কিছুই অনলাইন ভিত্তিক হয়ে যাবে। আবার কিছুদিন আগেও জন্মসনদ, ভিসা, জমির খাজনা খারিজ, ঠিক করার জন্য অফিসে যেতে যেতে পায়ের জুতা ক্ষয় করতে হতো। এর মূল কারণ হিসেবে লাল ফিতার দৌরাত্ম্য কে চিহ্নিত করা যায়। কিন্তু বর্তমানে এই সমস্ত ভোগান্তির অবসান ঘটেছে অফিসের কাজগুলো অনলাইন ভিত্তিক হওয়ার ফলে।

দেশের সবকিছুই যখন অনলাইন নির্ভর তখন ডক্টরদের সেবাগুলো কেনো এনালগ হয়ে থাকবে? দেশের স্মার্ট ডক্টরদের সেবাগুলোও স্মার্ট হওয়া উচিৎ। আর এই স্মার্ট সেবা নিশ্চিত করতে ডক্টরদের ওয়েবসাইট এর বিকল্প নেই।

যে কারণে ডক্টরদের ওয়েবসাইট প্রয়োজন

যুগের সাথে তাল মিলিয়ে ডক্টরদের সেবাসমূহ কে আরও ডিজিটালাইজেশন করতে ডক্টরদের ওয়েবসাইট প্রয়োজন। এছাড়াও প্রতিটি ডক্টরের উচিৎ অনলাইনে প্রেজেন্ট থাকা। তাদের সেবাসমূহকে সাধারণ মানুষজনের কাছে ভালোভাবে পৌঁছে দেওয়া, জনগণের বিশ্বস্ততা অর্জন করা, স্টাফদের কাজের প্রেসার কমানো, স্টাফদের কনট্যাক্ট নাম্বার ও তাদের বায়োগ্রাফি শেয়ার ইত্যাদি কারণে একজন ডক্টরের ওয়েবসাইট প্রয়োজন হয়। নিচে কারণসমূহ বিস্তারিত আলোচনা করা হলোঃ-

বিশ্বস্ততা অর্জন

অনেক রোগী অনলাইনে রিসার্চ করে তারপর এপয়েন্টমেন্ট বুক করে থাকেন। কখনো কখনো একজন রোগী যেসব বিষয় দেখে এপয়েন্টমেন্ট বুক করে তা হলোঃ- ডক্টরের ডিগ্রি, প্রশংসাপত্র, মেমবারশিপ ইত্যাদি। আরও অনেক কিছু আপনি আপনার ওয়েবসাইট এ ডিসপ্লে করতে পারেন যেমন এওয়ার্ডস, সাম্প্রতিক মিডিয়া কভারেজ ইত্যাদি। এমনকি আপনি আপনার ওয়েবসাইট এ আপনার আন্ডারে কাজ করা স্টাফদের বায়োগ্রাফি অন্তর্ভুক্ত করতে পারেন যার মাধ্যমে ক্লায়েন্টের কাছে আপনার বিশ্বস্ততা বাড়বে। তাই একজন রোগীর বিশ্বস্ততা অর্জন করার জন্য উপরোক্ত বিষয় সম্বলিত একটা ওয়েবসাইট দরকার।

ভালো ইম্প্রেশন তৈরি করুন

আপনি যদি আপনার সার্ভিসগুলো কে সবার কাছে পৌঁছে দিতে চান এবং এর বিস্তৃতি ঘটাতে চান তাহলে রোগীদের সাথে ফার্স্ট ইম্প্রেশন সুন্দর করুন। রোগী খুঁজে পাওয়া খুব একটা সহজ কাজ না। কিন্তু আপনার যদি অনলাইন ভিজিবিলিটি থেকে থাকে তাহলে ইনভিজিবল ডক্টরের চেয়ে আপনি আগে রোগী খুঁজে পাবেন। তাই আপনি যখন রোগী খুঁজে পাবেন তখন তাদের সাথে ফার্স্ট ইম্প্রেশন টা সুন্দর করা উচিৎ এবং তাদের মনোযোগ আকৃষ্ট করা উচিৎ। রোগীরা সব সময় একজন যত্নবান ও দায়িত্বশীল ডক্টর খোঁজে যে রোগীর সমস্ত অসুখের কথা মন দিয়ে শুনবে এবং সে অনুযায়ী প্রেসক্রাইব করবে। তাই একটা ওয়েবসাইট হতে পারে সুন্দর মাধ্যম আপনার এক্সপেরিয়েন্সগুলো শেয়ার করার জন্য।

টার্গেটেড কাস্টমারদের কাছে তথ্য সরবরাহ 

একটা ওয়েবসাইট হতে পারে দ্রুত তথ্য সরবরাহ এর প্রান কেন্দ্র। যদি শুক্রবারে আপনার অফিস বন্ধ থাকে কিংবা বৈরী আবহাওয়ার কারণে যদি অফিস বন্ধ রাখতে হয় তাহলে অতি শীগ্রই আপনি আপনার ওয়েবসাইট এ এই খবরটা পাবলিশ করে দিতে পারবেন। এটা ১০০ জন মানুষ কে কল করে জানানোর থেকে অনেক সহজ ও সাবলীল একটি প্রক্রিয়া। তাই গুরুত্বপূর্ণ খবরগুলো অতি দ্রুত টার্গেটেড কাস্টমার এর কাছে পৌঁছে দেওয়ার জন্য একটা ওয়েবসাইট খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

সার্ভিসের বর্ননা দেওয়া 

আপনি কি কি সার্ভিস দিচ্ছেন এবং কি কি পদ্ধতি অবলম্বন করে রোগীদের সেবা দিচ্ছেন তা এক্সপ্লেইন করে ওয়েবসাইট এ প্রকাশ করা খুবই ভালো আইডিয়া। এতে রোগীরা আপনার সার্ভিস সম্পর্কে পূর্নাঙ্গ ধারণা পাবে এবং আপনার সম্পর্কে জেনে, বুঝে সিদ্ধান্ত নিবে। এতে তাদের আপনার সার্ভিস সম্পর্কে পূর্নাঙ্গ ও স্পষ্ট ধারণা থাকবে।

সঠিক তথ্য শেয়ার করুন

অনেক সময় আপনার ওয়েবসাইট এর অতিরঞ্জিত ও মিথ্যা তথ্য রোগীদের বিভ্রান্তিতে ফেলে দেয়। আপনার সার্ভিস যেমন আপনি ঠিক সেভাবেই ওয়েবসাইট এ তুলে ধরুন। ভুল তথ্য দিলে সাধারণ মানুষ- জন বিভ্রান্ত হবে এবং আপনার কথার সাথে কাজের মিল না পেলে তারা ওয়েবসাইট এ খারাপ মন্তব্য করবে। এর ফলে আপনার ভবিষ্যৎ এ ক্লায়েন্ট পেতে কিছুটা ঝামেলা হবে। তাই আপনি আপনার ওয়েবসাইট এ নিজের অথোরিটির সঠিক তথ্য ও অবস্থা শেয়ার করুন।

অফিসের স্টাফদের সময় বাঁচবে

আপনার একটা ওয়েবসাইট এর মাধ্যমে আপনার অফিসের স্টাফদের সময় বেঁচে যাবে। আপনার অফিসের অনেক স্টাফ আছে যারা অনেক সময় ব্যয় করে ফেলে রোগীদের আপনার চেম্বারের লোকেশন জানানোর জন্য। কিন্তু আপনার যদি ওয়েবসাইট থাকে এবং সেখানে আপনি যদি আপনার চেম্বারের লোকেশন ট্যাগ করে দেওয়া থাকে এবং সাথে ম্যাপ এড করে দেওয়া থাকে তাহলে খুব সহজেই একজন রোগী আপনার চেম্বার খুঁজে পাবে। এর সাথে আরও আপনি এড করে দিতে পারেন আপনি কখন কখন চেম্বারে বসেন সেটাও। চাইলে আপনার ফ্যাক্স নাম্বার ও এড করে দিতে পারেন।

আপনার ওয়েবসাইট এ একটা অনলাইন ফর্ম এড করে দিতে পারেন যার মাধ্যমে যেকোনো রোগী চাইলে এপয়েন্টমেন্ট বুক করতে পারবে এবং আপনার চেম্বার ভিজিট করার সময় সাথে হার্ড কপি নিয়ে আসবে। এতে আপনার আর এক্সট্রা করে স্টাফ রাখা লাগবে না এই কাজের জন্য।  এর ফলে আপনার টাকাও বেঁচে গেলো এবং ঔ স্টাফকে দিয়ে অন্য কাজ করিয়ে নিতে পারলেন। তাই অফিসের কাজগুলো কমিয়ে আনতে এবং স্টাফদের সময় বাঁচাতে আজই একটা নিজের ওয়েবসাইট বানিয়ে নিন।

প্রতিযোগিদের থেকে এগিয়ে থাকবেন 

ধরুন, একই শহরে দুই জন ডক্টর রয়েছে। একজনের অনলাইনে ভিজিবিলিটি রয়েছে এবং অন্য জনের তা নেই। এখন যার অনলাইনে ভিজিবিলিটি রয়েছে সে অন্য জনের থেকে নিঃসন্দেহে এগিয়ে থাকবে। তাই আপনি যদি অনলাইনে ইনভিজিবল হোন তাহলে আপনার ক্লায়েন্ট চলে যাবে অন্য ডক্টরের কাছে। কিন্তু আপনার যদি ওয়েবসাইট থাকে তাহলে আপনি ঔ সমস্ত ডক্টরদের থেকে প্রতিযোগিতায় এগিয়ে থাকবেন।

সব তথ্য মিলবে ওয়েবসাইটে

ওয়েবসাইট থাকার অনেকগুলো সুবিধা রয়েছে। তার মধ্যে ভালো একটা সুবিধা হলো একটা ওয়েবসাইট এর মধ্যেই পাওয়া যায় প্রয়োজনীয় সমস্ত তথ্য। ওয়েবসাইট সব সময় হয় সাজানো গোছানো। আপনার প্রয়োজনীয় নির্দিষ্ট তথ্যটি ও আপনি একটু ঘাটলেই পেয়ে যাবেন ওয়েবসাইট এ। তাছাড়া কোনো বিশেষ দিনে যদি কোনো বিশেষ অফার থেকে থাকে তাহলে সেটাও ভিজিবল হবে আপনার সামনে। একসাথে এত কিছু একটা ওয়েবসাইট এ পাওয়া সম্ভব ভাবলে সত্যি অবাক লাগে।

যেমন হওয়া উচিৎ ডক্টরস ওয়েবসাইট 

আর পাঁচটা সাধারণ মানুষের মতো ডক্টরদের ওয়েবসাইট ও একই হবে। অনেক বেশি ডিজাইন, প্লাগিন থাকলে ওয়েবসাইট স্লো হয়ে যায়। আর ওয়েবসাইট স্লো হয়ে গেলে ভিজিটররা ভিজিট করার সময় ধৈর্য হারিয়ে ফেলে। তাই সব সময় ওয়েবসাইট কে ফাস্ট লোডিং রাখতে স্বচ্ছ, সুন্দর, মার্জিত ডিজাইনের ওয়েবসাইট ব্যবহার করা উচিৎ। তবে ওয়েবসাইট নিয়মিত আপডেট ও মোডিফাই রাখা জরুরি। অফিসের নতুন স্টাফদের বায়োগ্রাফি এড করা ও নতুন ফর্ম এড করা এই সমস্ত তথ্যগুলো মাঝে মাঝে আপডেট করতে হয়।

পরিশেষেঃ আপনি কি একজন ডক্টর এবং আপনার অফিসের তথ্য সমগ্র বাংলাদেশে ছড়িয়ে দিতে চান ও আপনার অনলাইন ভিজিবিলিটি বাড়াতে চান? তাহলে ডক্টরস ওয়েবসাইট প্যাকেজটি আপনার জন্য।  আমরা অভিজ্ঞ ওয়েব ডেভেলপার দ্বারা প্রিমিয়াম কোয়ালিটির ওয়েবসাইট তৈরি করে থাকি। তাই দেরি না করে আজই যোগাযোগ করুন টপার আইটিতে। আর ঝটপট বানিয়ে নিন আপনার কাস্টমাইজ ওয়েবসাইট টি।